প্রমাণিত বিএনপির ছায়াকে ছাত্রলীগের নেতা বানাবে নগর নেতা মেহেদী?

20

মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি ও শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে সাঈদীকে সবুজবাগ থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদ থেকে বহিষ্কার করেন সদ্য সাবেক সভাপতি সাজ্জাদুল ইসলাম রাসেল ও সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান শাহরিয়া।
কিন্তু রাসেল-শাহরিয়ার কমিটি ভাঙার মধ্য দিয়ে নতুন নেতৃত্বর সন্ধান শুরু হলে নিজের আদিপত্য বিস্তারে নিজেকে সবুজবাগ থানা ছাত্রলীগের আসন্ন কমিটির সভাপতি হিসেবে ঘোষণা দেন। মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগ সভাপতি মেহেদী হাসানের আর্শিবাদ পেয়েছেন জানিয়ে বিএনপিমনা ও অপরাধীদের সঙে নিয়ে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে যাচ্ছেন সাঈদী। সাঈদীর পরিবারের পরিচিতি অনুসন্ধান করলে ভয়ানক তথ্য বেরিয়ে আসে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে হত্যা করতে, বিতর্কীত হাইব্রিডদের অন্যতম, রাজনীতিকে অপরাজনীতিতে ব্যবহারের সব চেষ্টাই করে যাচ্ছেন সাঈদী।
পারিবারিক পরিচিতি:-
× ইকবাল হোসেন (সাঈদীর আপন চাচাতো ভাই)। ইকবাল হোসেন সবুজবাগ থানা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। যিনি বিগত ২০০৪ সালের আলোচিত ২১শে আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় অগ্রণী ভূমিকা রাখেন। তথ্য রয়েছে ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে সরকার বিরোধী ও সরকার পতনের চেষ্টায় একাধিক বোমা হামলাসহ গুপ্ত হামলার নায়ক। তার নেতৃত্বে ছাত্রদলের মিছিলে অংশ নেন এই সাঈদী। আর্শিবাদ নেন কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান ঢাকা মহানগর দক্ষিন জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি হাবিবুর রশীদ হাবিবের। জালাও পোড়াও মামলাসহ একাধিক মামলা কয়েকটি থানায়।
× ওমর ফারুক (সাঈদীর আতত্বীয়)তিনি সবুজাবগ থানা ছাত্রদলের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছনে। তার বিরুদ্ধেও একাধিক নাশকতার মামলা চলমান রয়েছে।
× আক্তার হোসেন (সাঈদীর বাবা মুজবিুর রহমানরে আপন বড় ভাই আইয়ূব আলীর ছেলে) তিনি সবুজবাগ থানা সেচ্ছা-সেবকদলের যুগ্ম: সাধারণ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তার বিরুদ্ধে কয়েকটি থানায় নাশকতার মামলা রয়েছে।
× মুক্তার হোসেন (সাঈদীর বাবা মুজবিুর রহমানরে আপন বড় ভাই জাবেদ আলীর ছেলে) তিনি যুবদলের নেতা।
× গোলাম হোসেন (সাঈদীর আপন চাচা) তিনি বিএনপির মনোনীত টানা ১৭ বছরের কা্উন্সিলর, ৪নং ওয়ার্ড, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। গোলাম হোসেন মহানগর ও সবুজবাগ থানা বিএনপির সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।
সাঈদী গোলাম হোসেন ও ইকবাল হোসেন দিক-নির্দেশনায় ছাত্রলীগের নাম ব্যবহার করে মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজিসহ সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালাচ্ছেন। সম্প্রতি তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গুলির ঘটনাও ঘটেছে…
এদিকে, সাঈদীকে সহযোগীতা করছেন স্থানীয় পর্যায়ে কিছু বিতর্কীত আওয়ামী লীগের নেতা।